রাজপুত্রের ভয় – ভয়কে করতে হবে জয়

রাজপুত্রের ভয় অজেয় রায় এক রাজ্য ছিল। না খুব বড়ো। না খুব ছোটো। মাঝারি। সুজলা সুফলা দেশ। সে রাজ্যে কেউ ধনী, কেউ বা গরিব। তবে সবারই অন্তত দু-বেলা খাওয়া জোটে, মাথার ওপর ছাদ আছে, তা সে যেমন-তেমন হোক। রাজ্যের লোক মোটামুটি সুখেশান্তিতে বাস করে। রাজার একটি মাত্র ছেলে। সেই পাবে সিংহাসন বাবা মারা গেলে। রাজপুত্র … Read more

বোকা জোলা আর শিয়ালের কথা

বোকা জোলা আর শিয়ালের কথা উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরী এক বোকা জোলা ছিল। সে একদিন কাস্তে নিয়ে ধান কাটতে গিয়ে খেতের মাঝখানেই ঘুমিয়ে পড়ল। ঘুম থেকে উঠে আবার কাস্তে হাতে নিয়ে দেখল, সেটা বড্ড গরম হয়েছে। কাস্তেখানা রোদ লেগে গরম হয়েছিল, কিন্তু জোলা ভাবল তার জ্বর হয়েছে। তখন সে ‘আমার কাস্তে তো মরে যাবে রে!’ বলে হাউ-হাউ … Read more

না বুঝে করিলে কাজ শেষে হায় হায়! – পস্তাতে তো হবেই।

না বুঝে করিলে কাজ শেষে হায় হায়! শিবনাথ শাস্ত্রী এক রাজার তিন পুত্র ছিল। ওই রাজার রাজধানীতে একসময় চোরের ভয় হইল। প্রজারা দলবদ্ধ হইয়া রাজার নিকটে আসিয়া বলিল, ‘মহারাজ, আমরা চোরের ভয়ে আর ঘর করিতে পারি না।প্রতি রাত্রে কোথা হইতে যে চোর আসে, আমরা কিছুই বুঝিতে পারি না; জাগিয়া থাকি, চোর ধরিতে পারি না।’ রাজা … Read more

করুণাসাগর বিদ্যাসাগর – বাংলার গর্ব , দামোদরের রাজপুত্র, মেদিনীপুরের সন্তান।

করুণাসাগর বিদ্যাসাগর বিদ্যাসাগরের মততা স্বাধীন চেতনা এবং কর্মোদ্যগী বাঙালি খুব একটা বেশি চোখে পড়ে না। এক জীবনে তিনি যেসব দিকচিহ্ন রেখে গেছেন, তার সঠিক মূল্যায়ন হয়তাে এখনও সম্ভব হয়নি। বিদ্যাসাগর একাধারে ছিলেন শিক্ষাব্রতী, সমাজ সংস্কারক এবং বাংলা গদ্যসাহিত্যের অন্যতম জনক। বিদ্যাসাগরের জন্ম হয়েছিল ১৮২০ খ্রিস্টাব্দের ২৬ সেপ্টেম্বর। তিনি জন্মেছিলেন মেদিনীপুর জেলার বীরসিংহ গ্রামে। তাঁর আসল … Read more

গুরু নানক – বিশিষ্ট সমাজ সংস্কারক , শিখ ধর্মের প্রবর্তক।

গুরু নানক ধর্মীয় গোঁড়ামিতে আচ্ছন্ন হয়ে যখন হিন্দু ও মুসলমানেরা ক্রমাগত দাঙ্গায় লিপ্ত, সেই সময় গুরু নানকের জন্ম হয়। গুরু নানক কোনােদিনও এই সাম্প্রদায়িক সংঘাত পছন্দ করতেন না। তাঁর মনে ধর্ম রক্ষা বা পালনের জন্য সবাইকে সংযম, সহিষ্ণুতা ও উদার মনােভাব নিয়ে চলতে হবে। তিনি মনে করতেন হিন্দু ও মুসলমান উভয় সম্প্রদায়ের কাছেই ঈশ্বর এক … Read more

হেলেন কেলার – অন্ধের চোখ, বেঁচে থাকার প্রেরণা।

হেলেন কেলার  (১৮৮০-১৯৬৮) তাঁর পৃথিবী ছিল শব্দহীন, আলোহীন। তাই বুঝি তাঁর আত্মার নিরন্তর নিঃশব্দ ক্রন্দন ছিল : ‘আলো! আমাকে একটু আলো দাও, ঈশ্বর!’ যাঁর কথা বলছি তিনি হেলেন কেলার যাঁকে দেখে রবীন্দ্রনাথ বলেছিলেন: :’I believe Miss Helen Keller is the purest minded human being ever in existence.’ এ কবির অত্যুক্তি নয়। এই মুক-বধির অন্ধ মার্কিন … Read more

শিবনাথ শাস্ত্রী – সাহিত্য জগতে এক উজ্জ্বল নক্ষত্র, পুরোধা পুরুষ।

শিবনাথ শাস্ত্রী বাঙালি প্রবন্ধক হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেছেন হাতে গোনা ক’জনের মধ্যে শিবনাথ শাস্ত্রী হলেন অন্যতম। তিনি পুরোধা পুরুষ হিসেবেও ব্রাহ্ম সমাজ আন্দোলনে স্বীকৃত। তাঁর লেখনী ছিল তলোয়ারের মতো তীক্ষ্ণ। তীব্র ভাষায় জেহাদ ঘোষণা করেছেন সামাজিক অসাম্যের বিরুদ্ধে। ১৮৪৭ খ্রিস্টাব্দে ৩১ জানুয়ারি তাঁর জন্ম হয়েছিল। শিবনাথের মামার বাড়ি ছিল দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার অন্তর্গত চাঙরিপোতা গ্রামে। … Read more

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর – কবিগুরু ,নোবেলজয়ী, গীতাঞ্জলির রচয়িতা, বাঙালির গর্ব, জাতীয় সংগীতের রচয়িতা।

বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর সব দিক থেকেই, সব অর্থেই তিনি হলেন বিশ্বকবি। শুধু কবি হিসাবে তিনি খ্যাতি লাভ করেননি। সাহিত্য-এ প্রচুর খ্যাতি লাভ করেন। সাহিত্যের এমন কোনাে শাখা নেই। যেখানে তাঁর গর্বিত পদচিহ্ন আঁকা হয়নি। শুধু তাই নয়, একাধারে তিনি ছিলেন কবি, নাট্যকার, ঔপন্যাসিক, ছােটো গল্পকার, প্রবন্ধকার ইত্যাদি। তিনি হলেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। তাই নিজের সম্পর্কে বলতে … Read more

রাজা রামমােহন রায় – আধুনিক ভারতের অন্যতম কারিগর, বিশিষ্ট সমাজ সংস্কারক। Ram Mohan Roy

রাজা রামমােহন রায় সর্বার্থে তাঁকে আমরা এক আধুনিক মানুষ বলতে পারি। তিনিই প্রথম ভারতীয়দের মধ্যে জাতীয়তাবাদের উন্মেষ ঘটিয়ে ছিলেন। তিনি হলেন রাজা রামমােহন রায়। রামমােহন রায়ের জন্ম হয় ১৭৭৪ খ্রিস্টাব্দের ১০ই মে। তিনি জন্মেছিলেন হুগলি জেলার রাধানগর গ্রামে। যখন তাঁর জন্ম হয়, তখন এদেশে সবেমাত্র ইংরেজ শাসন কায়েম হয়েছে। তখন সমাজে ছিল নানা ধরণের অত্যাচার। … Read more